Published On: Fri, Jan 6th, 2017

সমালোচকদের মুখ কী বন্ধ করতে পারলেন সৌম্য?

এতদিন ঘরে-বাইরে অনলাইনে-অফলাইনে সমালোচনায় ব্যতিব্যস্ত হয়ে পড়েছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের এই তরুণ তুর্কী। সেই সময় হয়তো শেষ হতে চলল।

 বহুদিন পর আবারও ঝড় উঠল সৌম্য সরকারের ব্যাটে। আবারও দেখা গেল চোখ জুড়ানো ভয়হীন দৃষ্টিনন্দন ব্যাটিং। দীর্ঘদিন ধরে ফর্ম হারানো এই ড্যাশিং ব্যাটসম্যানের রুদ্ররুপ দেখার জন্য অপেক্ষায় ছিল টিম ম্যানেজম্যান্ট থেকে দর্শকরা পর্যন্ত। সেই অপেক্ষার ফল হয়তো ফলতে চলেছে। জয়ের আশা জাগিয়েও সিরিজ খুইয়ে বসা ম্যাচে বাংলাদেশের প্রাপ্তি বলতে সৌম্য-সাব্বিরের ব্যাটিং।

ফর্মে ফেরার আশা নিয়ে নিউজিল্যান্ড সফরে বিমানে ওঠেন সৌম্য। প্রস্তুতি ম্যাচে বিচ্ছিন্ন কিছু ঝলক দেখিয়েছিলেন। কিন্তু সেটা তার নামের পাশে মানানসই না। প্রথম ওয়ানডের একাদশে সুযোগ পেয়ে আউট হয়েছিলেন মাত্র ১ রান করে। এরপর তার বিষয়ে কঠোর সিদ্ধান্তের ইঙ্গিত দেন কোচ চন্দ্রিকা হাতুরুসিংহে। ফলে সিরিজের বাকী দুই ম্যাচ একাদশের বাইরে থাকতে হয় তাকে। অবশ্য এতে দলের অবস্থার কোনো পরিবর্তন হয়নি। ৩-০ তে হোয়াইটওয়াশ হয় স্বাগতিকরা।

টি-টোয়েন্টি সিরিজ শুরু হলে আবারও সৌম্যর উপর আস্থা রাখে নির্বাচকরা। কোচ এবং অধিনায়ক উভয়েই সৌম্যর পাশে দাঁড়ান। তাকে ফর্মে ফেরার আরও একটি সুযোগ দেওয়া হয়। কিন্তু প্রথম ম্যাচে গোল্ডেন ডাক মারেন তিনি। এদিকে অধৈর্য হিসেবে বিখ্যাত বাংলাদেশের দর্শকরা সৌম্যকে একাদশ থেকে বাদ দেওয়ার জোড় আওয়াজ তোলে। একসময় যেমন আওয়াজ উঠেছিল দেশসেরা ওপেনার তামিম ইকবালের বেলায়। তামিম ফিরেছিলেন সেই কঠিন অবস্থা থেকে। আজ সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে সৌম্যও ইঙ্গিত দিলেন ফেরার।

বাংলাদেশের তিন ব্যাটিং স্তম্ভ তামিম-ইমরুল-সাকিব ফিরে যাওয়ার পর সাব্বিরের সাথে ম্যাচের হাল ধরেন সৌম্য। দলের রান তখন ৩৬। আস্কিং রানরেট অনেক। কিন্তু দুজনেই সেই চাপ কাটিয়ে কিউই বোলারদের ওপর পাল্টা আক্রমণ শুরু করেন তারা। সৌম্য ২৬ বলে ৩চার এবং ২ছক্কায় করেন ৩৯। সাব্বির ৩২ বলে ৩চার এবং ৩ ছক্কায় করেন ৪৮ রান। মজার ব্যাপার হলো দুজনেরই স্ট্রাইক রেট এক- ১৫০.০০।

এই দুই তরুণ যখন ব্যাট করছিলেন তখন ১৯৬ রানের লক্ষ্যে পৌঁছা কঠিন মনে হচ্ছিল না। উইকেটের চার দিকে রানের ফুলঝুড়ি ছুটছিল। কিন্তু দুজনেই খুব দৃষ্টিকটু শট খেলে আউট হন। এরপরই ব্যাটিং ধস নামে বাংলাদেশের ইনিংসে। ৩০ রানের মধ্যে বাকী ৫ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। এই ছোট্ট ইনিংস খেলে হয়তো সমালোচকদের মুখ পুরোপুরি বন্ধ করা সম্ভব নয়। তবে সেই ইঙ্গিতটাই হয়তো দিয়ে রাখলেন সৌম্য।

About the Author

Leave a comment

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>