Published On: Wed, Jan 11th, 2017

মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী ও তাঁর পরিবারের ওপর হামলা : সিরাজগঞ্জ

সিরাজগঞ্জের পৌর এলাকার একডালা মহল্লায় এক মুক্তিযোদ্ধার বৃদ্ধ বিধবা স্ত্রী ও তাঁর পরিবারের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। গত সোমবার বিকেলে একই মহল্লার রহম আলীর স্বজনদের হামলার শিকার হয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি হন মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী সুন্দরী বেয়া।

এ ঘটনায় জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ নিন্দা জানানোর পাশাপাশি দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

একডালা ধোপাবাড়ি মহল্লার মুক্তিযোদ্ধা মরহুম গাজী জামাল ইসলামের বাড়ির সামনের একটি সরকারি জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছিল প্রতিবেশি রহম আলীর সঙ্গে। জায়গাটি দিয়ে মুক্তিযোদ্ধার পরিবারসহ অনেকেই চলাচলের জন্য ব্যবহার করে আসছিল। কিন্তু প্রতিবেশী রহম আলী ও তার স্ত্রী নুরজাহান জায়গাটি নিজেদের দাবি করে ভোগ দখলের উদ্দেশ্যে তাঁদের চলাচলে বাধা দিয়ে আসছিল বলে অভিযোগ করে মুক্তিযোদ্ধার পরিবার। এ অবস্থায় এলাকার মাতব্বররা বসে বিষয়টি মীমাংসা করলেও তা মানছিল না রহম আলীর পরিবার।

মুক্তিযোদ্ধার বৃদ্ধ স্ত্রী সুন্দরী বেয়ার ছোট ছেলে রউজ উদ্দিনের স্ত্রী পারভিন খাতুন জানান, তিনি  ওই পথ ধরে বাড়ি ফেরার সময় প্রতিবেশী রহম আলীর ছেলে সজল তাকে বাধা দেয়। এ সময় তাদের মধ্যে তর্ক হলে সজল তাকে মারধর করে। এ সময় সুন্দরী বেয়ার বড় ছেলে শহিদুল ইসলামের বউ রিনা তার ভাতিজি স্কুলপড়ুয়া রুনা ফারজানা বাধা দিতে গেলে সজলের মা, ভাই নুরুল ইসলাম, বোন আশাসহ তাদের স্বজনরা তাদের মারধর করেন।

মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী সুন্দরী বেয়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বলেন, “আমার পরিবারে লোকদের ওপর হামলা চলাকালে আমি সেখানে গেলে নুরজাহনের মেয়ে আশা আমার চুলের মুঠ ধরে মাটিতে ফেলে দেয়। তারপর বাঁশ দিয়ে আমার মাথায় ও শরীরে বেদম মারপিট করলে আমি জ্ঞান হারিয়ে ফেলি। ” তিনি বলেন, “সরকারি জমি নিয়ে আমার পরিবারে ওপর এ হামলার আমি উপযুক্ত বিচার দাবি করি সরকারে কাছে। ” সুন্দরী বেয়ার ছোট ছেলে রউজ উদ্দিন বলেন, “জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদে বিষয়টি জানানো হয়েছে। হাসপাতালের সার্টিফিকেট পাওয়ার পর আমরা মামলার প্রস্তুতি নেব। “

পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ড কমিশনার মাসুম হাসান হামলার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, “আমি ঘটনার পর আহত সুন্দরী বেয়াকে হাসপাতালে দেখতে গিয়েছিলাম। দুই পরিবারে মাঝে জমি নিয়ে সমস্যা ও রান্না ঘড় তোলা নিয়ে বিরোধ রয়েছে। ” হাসপাতালের ওয়ার্ড সিনিয়র স্টাফ ডা.  অন্নপূর্ণা রানী বলেন, “সুন্দরী বেয়ার শরীরে ও মাথায় আঘাত রয়েছে, দুইটি দাঁত ভেঙে গেছে। মাথার আঘাতটি গুরুতর হওয়ায় কিছু পরীক্ষা দেওয়া হয়েছে। আর জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের পক্ষ  থেকে পরিবারকে মামলা করাসহ এ ঘটনার নিন্দা জানান মুক্তিযোদ্ধারা। “

Must Like and Share 🙂

About the Author

Leave a comment

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>