Published On: Thu, Jan 12th, 2017

কোটালীপাড়ায় মেয়রসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের

কর্মচারী নিয়োগে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগে গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়া সভার মেয়র  এইচ এম অহিদুল ইসলামসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে কোটালীপাড়া সহকারি জজ আদালতে এ মামলটি দায়ের করেন ক্ষতিগ্রস্থ সেফাত আহমেদ নামে এক চাকরী প্রত্যাশী।

সে কোটালীপাড়া উপজেলার কুরপাড়া গ্রামের বেল্লাল শেখের ছেলে।
মামলার অন্যান্য আসামীরা হলেন, পৌর সভার ২ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হুমায়ুর কবীর, সহকারী কমিশনার (ভূমি) কাজী তামজীদ আহম্মেদ, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলের উপ-সহকারী প্রকৌশলী, এস এম মাহবুবুর রহমান, কোটালীপাড়া পৌরসভার সচিব জহির উদ্দিন, চাকরীপ্রাপ্ত মাসুম বিল্লাহ, সামচুল হক গাজী, গোলাম সারোয়ার, মোঃ ইকবাল শিকদার, মোঃ হাসান এবং স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব।
মামলার বিবরণে জানা গেছে, বিগত ২০১৪ সালের ১৬ নভেম্বর কোটালীপাড়া পৌরসভায় পাম্প অপারেটর পদে ৫ জন কর্মচারী নিয়োগের জন্য পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তিতে প্রার্থীর যোগ্যতা অষ্টম শ্রেণি পাশ, দুই বছরের অভিজ্ঞতা ও বয়স ৩০ বছর হতে হবে বলে শর্ত দেয়া হয়। বিগত ২০১৫ সালের ৭ জুলাই যাচাই-বাছাই শেষে স্মারক নং কোঃ পৌঃ/জ-১/২০১৪/৩৩৯ মোতাবেক ২৪ জনকে লিখিত, মৌখিক ও ব্যবহারিক পরীক্ষায় অংশ নেয়ার কথা বলা হয়। বিগত ২০১৬ সালের ১১ নভেম্বর নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। লিখিত পরীক্ষায় ৯ জনকে উত্তীর্ণ দেখানো হয়।
এর আগে ৩ বার নিয়োগ পরীক্ষার তারিখ পরিবর্তন করা হয়। বাদীসহ ৯ জন মৌখিক পরীক্ষা অংশ নেন। পরে রাতেই বাদীকে কৌশলে বাদ দিয়ে ৫ জনের চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হয়। নিয়োগ প্রাপ্তদের মধ্যে ২ জনের বয়স চাকরীর শর্তানুযায়ী ৩০ বছর উত্তীর্ণ হয়েছে। নির্বাচিত ৫ জনের কাছ থেকে চাকরীর শর্ত ভঙ্গ করে মোটা অংশের উৎকোচ গ্রহন করে নিয়োগ সম্পন্ন করা হয়েছে বলেও উল্লেখ করা হয় মামলার আর্জিতে।
এ ব্যাপারে পৌর মেয়র এইচ এম অহিদুল ইসলাম-এর সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি বলেন, সকলকে নিয়মতান্ত্রিক ভাবেই চাকরি দেয়া হয়েছে। নিয়োগ কমিটি যথারীতি পরীক্ষা নিরীক্ষার শেষে  চাকরি দিয়েছে। বাদী চাকরি না পেয়ে সংক্ষুব্ধ হয়ে মিথ্যা মামলা করেছেন।

About the Author

Leave a comment

XHTML: You can use these html tags: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>